তারাপীঠ মহাশ্মশানের কথা কি আছে তারাপীঠ মহাশ্মশানে? তারাপীঠ মহাশশ্মানে প্রতিদিন শবদেহ দাহ কার্য্যের জন্য আসবেই। যতই প্রাকৃতিক দূর্যোগ যেমন খুব বন্যা হলেও এই মহাশ্মশানে দিনে একটি হলেও শব দাহের উদ্দেশ্যে আসতে দেখা যায়। দ্বারকা নদীর পাশ্ববর্তী মহাশশ্মান হওয়ার কারণে বর্ষার সময় বন্যা এলে পুরো মহাশশ্মানে জল পুরো ভর্তি হয়ে থৈথৈ করে কিন্তু আশ্চর্যজনক ভাবে কখনোই কোন ভাবেই চিতা ডোবেনা॥ স্থানীয় কথায় শিবা ভগ তলায় বা মহাশশ্মানের শ্বেত শিমুল গাছ তলায় এক এবং অদ্বিতীয় পঞ্চমুন্ডির আসন অবস্থিত । এই আসনে বসেই সাধনা করে বশিষ্ট মুনি ও গুরু বামদেব সিদ্ধিলাভ করেছেন। কথিত আছে যে মা তারার শিলামূর্তি টি এই শ্বেত শিমুল গাছের নিচেই পাওয়া যায়। মহাশশ্মানের মধ্যেRead More →

কৌশিকী অমাবস্যা, অন্য সব অমাবস্যার থেকে একটু আলাদা কারণ তন্ত্র মতে ও শাস্ত্র মতে ভাদ্র মাসের এই তিথি টি একটু বিশেষ কারণ অনেক কঠিন ও গুহ্য সাধনা আজকের দিনে করলে আশাতীত ফল মেলে, সাধক কুন্ডলিনী চক্র কে জয় করে,বৌদ্ধ ও হিন্দু তন্ত্রে এই দিনের এক বিশেষ ‘মহাত্ব আছে, তন্ত্র মতে আজ এই রাত কে তারা রাত্রি বলাহয় ও এক বিশেষ মুহুর্তে স্বর্গ ও নরক দুই এর দুয়ার মুহুর্তের জন্য উম্মুক্ত হয় ও সাধক নিজের ইচ্ছা মতো ধনাত্মক অথবা ঋণাত্মক শক্তি নিজের সাধনার মধ্যে আত্মস্থ করে, ও সিদ্ধি লাভ করে চন্ডি তে বর্ণিত মহা সরস্বতী দেবীর কাহিনী তে বলা আছে, পুরাকালে একবার সুম্ভ ও নিসুম্ভ কঠিনRead More →