গুরুদেব সাধক বামাক্ষ‍্যাপা বাবার জীবনী



তারাপীঠের সর্বাধিক প্রসিদ্ধ সাধক হলেন বামাক্ষ্যাপা (১৮৪৩-১৯১১)।
মন্দিরের নিকটেই তাঁর আশ্রম ছিল। বামাক্ষ্যাপা ছিলেন তারাদেবীর একনিষ্ঠ ভক্ত।
তিনি মন্দিরে পূজা করতেন এবং শ্মশানে সাধনা করতেন।
তিনি ছিলেন উনিশ শতকের অপর প্রসিদ্ধ কালীভক্ত রামকৃষ্ণ পরমহংসের সমসাময়িক।
অল্প বয়সেই তিনি গৃহত্যাগ করেন এবং কৈলাসপতি বাবার সান্নিধ্যে তন্ত্রসাধনা শুরু করেন।
পরে তিনি সমগ্র তারাপীঠের প্রধান ধর্মীয়  ব্যক্তিত্ব হয়ে উঠেছিলেন।
ভক্তেরা তাঁর কাছে আশীর্বাদ বা আরোগ্য প্রার্থনা করতে আসত।
কেউ কেউ আবার শুধুই তাঁকে দর্শন করতে আসত।
তিনি মন্দিরের নিয়ম  মানতেন না।
একবার নৈবেদ্য নিবেদনের পূর্বে খেয়ে ফেলে তিনি পুরোহিতদের রোষ  দৃষ্টিতে পড়েছিলেন।
শোনা যায়, এরপর তারাদেবী নাটোরের মহারানিকে
 স্বপ্নে দেখা দিয়ে দেবীর পুত্র বামাক্ষ্যাপাকে প্রথমে ভোজন করাতে আদেশ  দেন। 
তারপর থেকে মন্দিরে দেবীকে নৈবেদ্য নিবেদনের পূর্বে বামাক্ষ্যাপাকে 
ভোজন করানো হত এবং কেউ তাঁকে বাধা দিতেন না।
কথিত আছে, তারাদেবী শ্মশানক্ষেত্রে ভীষণা বেশে বামাক্ষ্যাপাকে
দর্শন দিয়ে তাঁকে স্তন্যপান করিয়েছিলেন।


Tarapith. Powered by Blogger.