জানা অজানা তথ্য

Blog Post

কৌশিকী অমাবস্যা ঘিরে পৌরাণিক কাহিনী

কৌশিকী অমাবস্যা ঘিরে পৌরাণিক কাহিনী

তারাপীঠে কৌশিকী অমবাস্যার বিশেষ পূজা উপলক্ষ্যে প্রতিবছর অনেক ভক্তের সমাগম হয়। উল্লেখ্য, এই বছর ১৮ অগাস্ট মঙ্গলবার সকাল ৯ঃ৪৬ মিনিট হইতে বুধবার সকাল ৮ঃ২২ মিনিট পর্যন্ত থাকবে এই অমাবস্যা। এই কৌশিকী অমাবস্যা উপলক্ষ্যে তারাপীঠে রয়েছে এক বিশেষ কাহিনী। এই মহাজাগতিক ঘটনার কালক্ষণেই রাতভর চলে তারাপীঠের বিশেষ পূজা। মা তারার এই বিশেষ পূজার নেপথ্যের কাহিনি কী? জেনে নেওয়া যাক

দেবী তারা মাকে তারাপীঠে আজকের দিনের বিশেষ তিথিতে “কৌশিকী” রূপে পূজা করা হয়। তারাপীঠে আজকের দিনেই মা তারার অরাধনায় সাধক বামা ক্ষ্যাপা সিদ্ধি লাভ করেন। তাই এই পীঠকে ‘সিদ্ধিপীঠ’বলা হয়। আবার কথিত রয়েছে , কৌশিকী রূপে মা এই বিশেষ তিথিতে ‘শুম্ভ’ ও ‘নিশুম্ভ’ নামের দুই অসুরকে বধ করেন। সেই উপলক্ষ্যে এখানে বিশেষ পূজা আয়োজিত হয়।

কৌশিকী অমাবস্যা ঘিরে পৌরাণিক কাহিনী

মৎস পূরাণ ও মাণ্ডেয় পূরাণে বলা হয়, অসুর দ্বয় শুম্ভ ও নিশুম্ভকে বধ করতে দেবী পার্বতী সাধনা শুরু করেন। তপস্যার পর, নিজের শ্বেতশুভ্র গায়ের রঙ পরিত্যাগ করে ,উজ্জ্বল কালো বর্ণে ভয়াল রূপ ধারণ করেন দেবী।

সেই রূপে দেবী পার্বতী হয়ে ওঠেন ‘কৌশিকী’। আর এই কৌশিকীই অমাবস্যার এক বিশেষ কালক্ষণে, অন্ধকারে বধ করেন শুম্ভ ও নিশুম্ভ নামের দুই অসুরকে। সেই কারক্ষণকে স্মরণ করেই অনুষ্ঠিত হয় কৌশিকী অমাবস্যার পূজা।

কৌশিকী অমাবস্যা ও তারাপীঠের তন্ত্রসাধনা

শুধু হিন্দু মতে নয়, বৌদ্ধ মতেও তন্ত্র সাধনার জন্য এই দিনটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। শাস্ত্রজ্ঞরা বলেন, কৌশিকী অমাবস্যার রাতে ধনাত্মক ও ঋণাত্মক শক্তিকে সাধনার মাধ্যমে তান্ত্রিকরা ধারণ করে থাকেন। যে সাধনার ফলে বলা হয়, আশাতীত ফল লাভ করেন তন্ত্রসাধকরা। তারাপীঠের মহাশ্মশানে এই তন্ত্রসাধনা হয়ে থাকে এই পূণ্য তিথিতে।

কৌশিকী অমাবস্যা উপলক্ষ্যে মায়ের পূজা তারাপীঠে

অমাবস্যার এই বিশেষ তিথি উপলক্ষ্যে তারা মায়ের বিশেষ নিশি পূজা আয়োজিত হয়। মহাভোগ ও মহা রাজবেশ সহকারে মায়ের এই পূজা অনুষ্ঠিত হয়

অনলাইনে পূজা পাঠান তারাপীঠে

সংকল্প পূজা উপলক্ষ্যে শুরু হয়ে গেছে অনলাইনের মাধ্যমে চলছে পূজা গ্রহণ। নামগোত্র লিখে এই পূজা, বিশেষ পূজা ও সাধারণ পূজা গ্রহণ করা হচ্ছে অনলাইনে। সাধারণ পূজা গ্রহণের খরচ ৫০১ টাকা। বিশেষ পূজা গ্রহণ করা হচ্ছে ১০০১ টাকা দিয়ে।

Find Any Problem? Report US Now

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *